স্থাপনা উচ্ছেদের পর সরকারি সাইনবোর্ড - বঙ্গ সমাচার স্থাপনা উচ্ছেদের পর সরকারি সাইনবোর্ড - বঙ্গ সমাচার

সোমবার, ১৫ অগাস্ট ২০২২, ১০:০২ পূর্বাহ্ন

জরুরী বিজ্ঞপ্তি :
জেলা ভিত্তিক প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে। আমাদের পরিবারে যুক্ত হতে আপনার সিভি পাঠিয়ে দিন bongosamacharnews@gmail.com এই ঠিকানায়। বিজ্ঞাপনের জন্য  ইমেইল করুন bongosamacharnews@gmail.com এই ঠিকানায়।

স্থাপনা উচ্ছেদের পর সরকারি সাইনবোর্ড

অনলাইন ডেস্ক:
নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয় মেঘনা শিল্পনগরী এলাকায় ঢাকা-৭ আসনের সংসদ সদস্য হাজী সেলিমের দখলে থাকা প্রায় ১৪ বিঘা খাসজমি উদ্ধার করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার বিকালে সোনারগাঁ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আতিকুল ইসলামের নেতৃত্বে একটি দল দ্বিতীয় দফা অভিযান চালিয়ে এ জমি উদ্ধার করে।

এ সময় হাজী সেলিমের মালিকানাধীন টাইগার সিমেন্ট ফ্যাক্টরির অভ্যন্তরে সরকারি খাস জমি থেকে একটি টিনশেড গোডাউন এবং পাথর অপসারণ করে তা দখলমুক্ত করা হয়।

এরপর ওই জমিতে জেলা প্রশাসকের পক্ষ থেকে সরকারি সম্পত্তি উল্লেখ করে একাধিক সাইনবোর্ড টানিয়ে দেয়া হয়।

এর আগে গত রোববার ওই খাসজমি উদ্ধারে প্রশাসনের পক্ষে অভিযান চালানো হয়েছিল। ওইদিন সময়স্বল্পতার কারণে এবং বুলডোজার বিকল হয়ে পড়ায় টাইগার সিমেন্ট ফ্যাক্টরির অভ্যন্তরে অবৈধভাবে গড়ে ওঠা সব স্থাপনা উচ্ছেদ না করে অভিযান সমাপ্ত করা হয়।

তবে সরকারি সম্পত্তিতে টাইগার সিমেন্ট কারখানা কর্তৃপক্ষ যেসব অবৈধ স্থাপনা গড়ে তুলেছে তা দখলমুক্ত করে দিতে ৩ দিনের সময় বেঁধে দিয়ে নোটিশ দিয়েছিল উপজেলা প্রশাসন। উপজেলা প্রশাসনের বেঁধে দেয়া সময়ের মধ্যে দখল ছেড়ে না দেয়ায় বৃহস্পতিবার পুনরায় অভিযান চালায় প্রশাসন।
সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, ২০১৮ সালে নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ উপজেলার মেঘনা শিল্পনগরীর ইসলামপুর এলাকায় অবস্থিত মদিনা গ্রুপের অঙ্গপ্রতিষ্ঠান টাইগার সিমেন্ট ফ্যাক্টরির অভ্যন্তরে মদিনা গ্রুপ আরও কয়েকটি অঙ্গপ্রতিষ্ঠান নির্মাণ করার জন্য চররমজান সোনাউল্লাহ মৌজায় দিয়ারা ১ নম্বর খাস খতিয়ানভুক্ত ৭৪১০, ৭৪১২, ৭৪১৪, ৭৬২৮, ৭৬৩৫, ৭৬৩৬, ৭৬৪৪, ৭৬৪৫, ৭৬৫৩ ও ৭৬৫৭ দাগে ১ দশমিক ০৮৪৪ একর এবং ৯৬০১ দাগে ২ দশমিক ৩৩২০ একর ভূমি অবৈধভাবে বালু ফেলে দখল করে নেয়। সেসময় সোনারগাঁ উপজেলা ভূমি অফিসের কর্মকর্তারা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন এবং প্রায় ১১.৩৮ বিঘা সরকারি খাস সম্পত্তি চিহ্নিত করে সেখানে লাল নিশান টানিয়ে দেন।

এ ব্যাপারে ২০১৯ সালের ২৯ সেপ্টেম্বর সোনারগাঁ উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) নাজমুল হোসেন নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে হাজী সেলিমের সরকারি খাস সম্পত্তি অবৈধভাবে দখলের বিষয় উল্লেখ করে একটি চিঠি পাঠান।

দখল করা সম্পত্তি স্থায়ী বন্দোবস্তের জন্য ২০১৮ সালের ৬ আগস্ট মদিনা গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক হাজী সেলিম তার কোম্পানির প্যাডে নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসকের বরাবর একটি আবেদন করেন। ওই আবেদনের পর জেলা প্রশাসকের কার্যালয় তাকে সম্পত্তি স্থায়ী বন্দোবস্ত না দিলেও সংসদ সদস্যের প্রভাব খাটিয়ে হাজী সেলিম দেয়াল নির্মাণ করে তা দখলে নিয়ে নেন। এ ব্যাপারে নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসক ও সোনারগাঁ উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) কার্যালয় থেকে মদিনা গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক হাজী সেলিমকে সরকারি সম্পত্তির অবৈধ দখল ছেড়ে দেয়ার জন্য নোটিশ দেয়া হয়। কিন্তু তিনি সেই নোটিশে কোনো সাড়া দেননি।

সোনারগাঁ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আতিকুল ইসলাম জানান, সরকারি ১৪ বিঘা খাসজমি দখলমুক্ত করে দিতে বেঁধে দেয়া তিনদিন সময় অতিক্রম হওয়ার পর বৃহস্পতিবার বিকালে আবারও মেঘনা শিল্পনগরী এলাকায় অবস্থিত টাইগার সিমেন্ট ফ্যাক্টরিতে অভিযান পরিচালনা করা হয়েছে। তার নেতৃত্বে একটি অভিযানকারী দল এ অভিযান পরিচালনা করেন। অভিযানকারী দল এ সময় হাজী সেলিমের দখলে থাকা প্রায় ১৪ বিঘা জমি থেকে একটি টিনশেড গোডাউন ও পাথরের স্তূপ অপসারণ করে তা দখলমুক্ত করে। পরে দখলমুক্ত হওয়া ওই জমিতে জেলা প্রশাসকের পক্ষ থেকে সাইনবোর্ড টানিয়ে দেয়া হয়। তিনি বলেন, এক সপ্তাহের মধ্যে চিহ্নিত করা ওই সরকারি সম্পত্তিতে টিনের দেয়াল অথবা কাঁটাতারের বেড়া স্থাপন করা হবে। এ ছাড়াও ওই সম্পত্তি সব সময় দখলমুক্ত রাখতে স্থানীয় পিরোজপুর ভূমি অফিসের মাধ্যমে তদারকি করা হবে।

এদিকে বৃহস্পতিবার বিকালে হাজী সেলিমের ব্যক্তিমালিকানাধীন মদিনা গ্রুপের টাইগার সিমেন্ট কারখানায় অভিযান পরিচালনা শেষে অভিযানকারী দল স্থানীয় ইসলামপুর গুচ্ছগ্রামে অভিযান চালায়। এ সময় অভিযানকারী দল গুচ্ছগ্রামে যুবলীগ নেতা কামাল হোসেনের দখলে থাকা প্রায় ৩ বিঘা খাসজমি উদ্ধারে তৎপরতা চালায়।

অভিযানকারী দল এ সময় ইসলামপুর গুচ্ছগ্রামে কামাল হোসেনের অবৈধ মার্কেট আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে অপসারণের নির্দেশ দেয় এবং জেলা প্রশাসকের পক্ষে সরকারি সম্পত্তি উল্লেখ করে সাইনবোর্ড টানিয়ে দেয়। এ সময় অভিযানকারী দল একটি টিনের ঘর থেকে অস্থায়ী আওয়ামী লীগ কার্যালয় লিখা সংবলিত একটি সাইনবোর্ড অপসারণ করে। বৃহস্পতিবার অভিযানকারী দলের সঙ্গে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন পিরোজপুর ইউনিয়ন ভূমি কর্মকর্তা আতাউর রহমান, মোগরাপাড়া ইউনিয়ন ভূমি কর্মকর্তা মো. জালাল উদ্দিন ও ভূমি অফিসের বিভিন্ন কর্মকর্তা-কর্মচারীসহ আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর বিভিন্ন সদস্য|

সংবাদটি শেয়ার করুন


Leave a Reply

Your email address will not be published.

পূর্বানুমতি ব্যাতিত এই সাইটের কোন লেখা, ছবি বা ভিডিও ব্যাবহার করা নিষিদ্ধ।
Design & Developed BY ThemesBazar.Com